A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: imagejpeg(assets/shares/bn/news-617c81b47e4758942128b6bd2319d9c1.jpeg): failed to open stream: Permission denied

Filename: controllers/Reader.php

Line Number: 352

Backtrace:

File: /var/www/html/old_jamuna/application/controllers/Reader.php
Line: 352
Function: imagejpeg

File: /var/www/html/old_jamuna/application/controllers/Reader.php
Line: 66
Function: call_user_func_array

File: /var/www/html/old_jamuna/index.php
Line: 295
Function: require_once

রসরাজের ভাইকে খুঁজছে পুলিশ | jamunanews24.com

রসরাজের ভাইকে খুঁজছে পুলিশ | jamunanews24.com

যমুনা নিউজ: নাসিরনগরে হামলার ঘটনায় এবার রসরাজ দাসের ছোট ভাই প...

বাংলা  
 সারাদেশ
রসরাজের ভাইকে খুঁজছে পুলিশ
Published : Friday, 13 January, 2017 at 4:54 PM,  Read :  58  times.
রসরাজের ভাইকে খুঁজছে পুলিশযমুনা নিউজ: নাসিরনগরে হামলার ঘটনায় এবার রসরাজ দাসের ছোট ভাই পলাশ দাসের খোঁজে নেমেছে পুলিশ।

রসরাজের বিরুদ্ধে পুলিশের দায়ের করা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের মামলায় সাক্ষী হিসেবে স্থানীয় হরিণবেড় গ্রামের অনুকুল দাসের ছেলে আশুতোষ দাসের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি গ্রহণের পর থেকেই তাকে খোঁজা হচ্ছে।

যদিও পুলিশ কর্মকর্তারা সরাসারি পলাশের খোঁজে নামার বিষয়টি এড়িয়ে যাচ্ছেন। তবে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইকবাল হোসাইন জানিয়েছেন, আশুতোষ তার জবানবন্দিতে যে কজনের নাম বলেছেন তাদের সবাইকে খোঁজা হচ্ছে।

জানা গেছে, ফেসবুকে পবিত্র কাবা শরীফকে ব্যঙ্গ করে ছবি পোস্টের জেরে রসরাজ দাসকে পুলিশ গ্রেফতারের পর থেকেই লোকচক্ষুর আড়ালে ছিলেন তার পরিবারের সদস্যরা।

তবে ৩০ অক্টোবর হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দির ও ঘর-বাড়িতে হামলা-ভাংচুরের ঘটনার একমাস পর ২ ডিসেম্বর রসরাজের মুক্তি চেয়ে ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করেন পরিবারের লোকজন।

এদিকে, হামলার ঘটনার পর ভারতের আগরতলায় গা ঢাকা দিয়ে থাকা আশুতোষ দাসকে গত ৯ জানুয়ারি কৌশলে দেশে ফিরে আনে পুলিশ। এদিনই তাকে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে পুলিশ তাকে নানা বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে।

এরপর ১১ জানুয়ারি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শফিকুল ইসলামের আদালতে রসরাজ দাসের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে দায়ের করা মামলার সাক্ষী হিসেবে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন।

জানা যায়, আশুতোষ তার জবানবন্দিতে ফেসবুকে ধর্মীয় অবমাননার সেই পোস্ট নিয়ে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইকবাল হোসাইন বলেন, আশুতোষ কয়েকজনের নাম বলেছেন। আমরা তাদেরকে খুঁজছি। তাদের ধরতে পারলেই মূল রহস্যের জট খুলে যাবে।

আশুতোষ যাদের নাম বলছে তাদের মধ্যে পলাশ রয়েছেন কী না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, তদন্তের স্বার্থে সরাসরি কারো নাম এখন বলা যাবে না। এ বিষয়ে পরে বিস্তারিত জানানো হবে।

jamunanews24.com/rasib/rana/13 january 2017

� পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ �