সাকিব-মুশফিক দ্বৈরথে অনন্য উচ... | jamunanews24.com

যমুনা নিউজ : নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়েলিংটন টেস্টের দ্বিতীয় ...

বাংলা  
 খেলা
সাকিব-মুশফিক দ্বৈরথে অনন্য উচ্চতায় বাংলাদেশ
Published : Friday, 13 January, 2017 at 12:13 PM,  Read :  100  times.
সাকিব-মুশফিক দ্বৈরথে অনন্য উচ্চতায় বাংলাদেশযমুনা নিউজ : নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়েলিংটন টেস্টের দ্বিতীয় দিন সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিমের রেকর্ড জুটিতে বিশ্ব ক্রিকেটে অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে গেছে বাংলাদেশ।

ক্যারিয়ারের প্রথম দ্বিশতক পেলেন সাকিব আল হাসান। অবশেষে নিউজিল্যান্ডে রান পেলেন মুশফিকুর রহিম। দুইজন পঞ্চম উইকেটে গড়লেন রেকর্ড ভাঙা এক জুটি। তাতে প্রথম ইনিংসে বিশাল সংগ্রহ গড়ছে বাংলাদেশ।

দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে বাংলাদেশের স্কোর ৫৪২/৭। ১০ রানে ব্যাট করছেন সাব্বির রহমান। লক্ষ্যমাত্রা আর কতদূর যাবে তা নির্ভর করছে এই তরুণের ওপর। শেষ সেশনে তিন উইকেট হারিয়ে ১৫১ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।

২১৭ রানের দারুণ ইনিংস খেলে ফিরেন সাকিব আল হাসান। অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম বিদায় নেন ১৫৯ রান করে। দিনের শেষ বলে আউট হন তরুণ মেহেদী হাসান মিরাজ।

দিনের প্রথম সেশনে ১১৫ ও দ্বিতীয় সেশনে ১২২ রান যোগ করে বাংলাদেশ। ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের আলো ঝলমলে দিনে রান দেয়ার শতক করেছেন নিল ওয়াগনার (৩/১২৪), ট্রেন্ট বোল্ট (২/১২১) ও টিম সাউদি (২/১৪৪)।


দিনের শেষ বলে আউট হন মেহেদী হাসান মিরাজ। দেশের বাইরে নিজের প্রথম ইনিংসে এই তরুণ ফিরেন শূন্য রানে। নিল ওয়াগনারের বলে টিম সাউদি স্লিপে ক্যাচ নেওয়ার সময় ১৩৬ ওভারে বাংলাদেশের স্কোর ৫৪২/৭।

বাংলাদেশকে বড় সংগ্রহ এনে দিয়েছেন সাকিব আল হাসান। নিল ওয়াগনারের বলে ব্যাটের কানায় লেগে বোল্ড হন বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান। দলের স্কোর তখন ৫৩৬/৬।

২৭৬ বলে ২১৭ রান করতে ৩১টি চার হাঁকান সাকিব। এই ইনিংসেই টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের রেকর্ড নিজের করে নেন তিনি। সাকিবের আউটের পর ছুটে এসে তার সঙ্গে হাত মেলান নিউজিল্যান্ডের খেলোয়াড়রা।

তামিম ইকবালকে ছাড়িয়ে টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ এখন সাকিব আল হাসানের। ১ রান নিয়ে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানের ২০৬ রানকে ছাড়িয়ে যান তিনি। সাকিব রেকর্ড নিজের করে নেয়ার পর দাঁড়িয়ে হাততালি দিয়ে সতীর্থকে অভিনন্দন জানান তামিম।


বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড সিরিজে যে কোনো জুটিতে সর্বোচ্চ রান এখন সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিমের। ৩৫৯ রানের জুটিতে তারা পেছনে ফেলেন মার্টিন গাপটিল ও ব্রেন্ডন ম্যাককালামকে। নিউজিল্যান্ডের দুই ব্যাটসম্যান ২০১০ সালে হ্যামিল্টনে ষষ্ঠ উইকেটে গড়েছিলেন ৩৩৯ রানের জুটি।


মুশফিকুর রহিমকে আউট করে করে ৮২.২ ওভার স্থায়ী ৩৫৯ রানের বিশাল জুটি ভাঙেন ট্রেন্ট বোল্ট। অফ স্টাম্পের বাইরের বল তাড়া করতে গিয়ে উইকেটরক্ষক বিজে ওয়াটলিংকে ক্যাচ দেন বাংলাদেশের অধিনায়ক।

২৬০ বলে ২৩টি চার ও একটি ছক্কায় ১৫৯ রান করেন মুশফিক। শেষ বিকেলে অধিনায়কের ফেরার সময় দলের স্কোর ৫১৯/৫।

এদিকে, কাট করে চার হাঁকিয়ে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো দ্বিশতকে পৌঁছান সাকিব আল হাসান। টেস্টে বাংলাদেশের তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে দ্বিশতক পেলেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

২৫৩ বলে দ্বিশতকে যেতে ৩০টি চার হাঁকান এই অলরাউন্ডার। সে সময় অন্য প্রান্তেই ছিলেন বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে দ্বিশতক করা মুশফিকুর রহিম।

ট্রেন্ট বোল্টের বলে মুশফিকুর রহিমের চারে পাঁচশ ছাড়ায় বাংলাদেশের সংগ্রহ। এক রান নিয়ে দলকে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বোচ্চ রানের সংগ্রহ এনে দেন অধিনায়ক। ১২২ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫০৩/৪।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের আগের সর্বোচ্চ ছিল ২০১৩ সালে চট্টগ্রামে করা ৫০১ রান।

jamunanews24.com/sm/ 13 Janu. 2017

� পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ �