আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের ব্যস্ত... | jamunanews24.com

ইসহাক আসিফ: জেলা পরিষদ নিবাচনে ৬১ জেলায় প্রার্থীর নাম ঘোষণা ক...

বাংলা  
 রাজনীতি
আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের ব্যস্ততা শুরু
Published : Tuesday, 29 November, 2016 at 1:10 AM,  Read :  95  times.
আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের ব্যস্ততা শুরুইসহাক আসিফ: জেলা পরিষদ নিবাচনে ৬১ জেলায় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে আওয়ামী লীগ। দলের পক্ষ থেকে সতর্ক করা হয়েছে, সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে কেউ বিদ্রোহী প্রার্থী হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে সে বিষয়ে দলটির পক্ষে থেকে কিছু জানা যায়নি।

এ নির্বাচনে দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গের কোনো সুযোগ নেই। নির্বাচন দলীয়ভাবে না হলেও দল থেকে প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এতে নেতা-কর্মীদের ব্যস্ততাও বেড়ে গেছে। তারা প্রার্থীদের বিজয়ের মনোভাব নিয়ে সরকারের উন্নয়ন কমকাণ্ড তুলে ধরছেন। ধীরে ধীরে শুরু হচ্ছে নির্বাচনী ব্যস্ততা।

এদিকে, চূড়ান্ত নাম ঘোষণার পর জেলার বেশ কয়েকজন নেতার সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হয়েছে। তারা জানান, দলীয় সমর্থন পাওয়াকেই তারা জেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয় বলে বিবেচনা করছেন।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ মোমতাজ উদ্দিন বলেন, প্রার্থী ঘোষণা হয়েছে কেবল, এখনও নির্বাচনী হাওয়া উঠেনি। তিনি বলেন, এটা তো প্রতিনিধিদের ভোট। দল মনোনীত প্রার্থীদের জয়ী করতে কাজ করে যাব।

জানতে চাইলে সিরাজগঞ্জের সাবেক জেলা প্রশাসক আব্দুল লতিফ বিশ্বাস বলেন, আমরা চাই, সকল দল নিবাচনে অংশগ্রহণ করুক। সব দলের সমন্বয়ে নিবাচন হোক। যদি এ ক্ষেত্রে কেউ না আসে তাহলে কিছু করার থাকবে না। তিনি বলেন, উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় আমরাই বিজয় অর্জন করব।

আব্দুল লতিফ বলেন, আমি সিরাজগঞ্জের জেলাপ্রশাসক ছিলাম। এবারও দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা আমাকেই জেলা পরিষদ নির্বাচনে দলের প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করেছেন চূড়ান্তভাবে। এক্ষেত্রে আবারো আমরা আশাবাদী বিজয়ী হওয়ার।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের উপ-কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক জেদ্দা পারভীন খান রিমি বলেন, আমি সিরাজগঞ্জের মেয়ে হিসেবে বলতে পারি, আওয়ামী লীগ সরকার দেশের উন্নয়নের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সেই দিক বিবেচনা করে এবারো জেলা পরিষদ নিবাচনে আমরাই বিজয়ী হব বলে আশাবাদী।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, যেকোনো দল তাদের প্রার্থীকে সমর্থন দিতে পারে। আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করলেও নির্বাচন দলীয় প্রতীকে হচ্ছে না।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে আরও জানা যায়, আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের জয়ের সম্ভাবনাই বেশি। কারণ হিসাব কষে দেখা যায়, সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভার মেয়র-কাউন্সিলর, উপজেলা, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং ভাইস-চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের মধ্যে তাদের প্রতিনিধির সংখ্যা বেশি।

অন্যদিকে, বর্তমান অবস্থা বিবেচনা করে এ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে বিএনপি ইতিবাচক কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি।

আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ জানিয়েছেন, জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী ঠিক করতে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার নির্বাচন মনোনয়ন বোর্ডের সভা গত বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই সভায় বোর্ড সদস্যরা প্রার্থীদের নাম চূড়ান্ত করেন।

জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, দলীয়ভাবে যাদের মনোনয়ন দেয়া হয়েছে, তাদের বিজয়ের লক্ষ্যে কাজ করবে আওয়ামী লীগ। জয়ের সম্ভাবনাও বেশি।

jamunanews24.com/asif/KF/Roushan/28 november 2016

� পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ �